ঢাকা ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোনাই নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত গ্রামের পর গ্রাম

ভারি বর্ষণ ও সীমান্তের ওপার থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে হবিগঞ্জের মাধবপুরে সোনাই নদীর বাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিন ভর ভারি বর্ষণ হয়। এছাড়া সীমান্তের ওপার থেকে নেমে আসা পানির চাপে মঙ্গলবার রাতে ভেঙে যায় বাঁধ। এতে আন্দিউড়া, দুর্গাপুর, বার চান্দুরা, বাকশাইল, আন্দিউড়া, আড়িয়াসহ বিভিন্ন গ্রামের রাস্তা-ঘাট, জমির ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়ে যায়। ফলে আশপাশের গ্রামগুলোর লাখ লাখ মানুষের চলাচলে নেমে এসেছে দুর্ভোগ। এছাড়াও বিভিন্ন পুকুর থেকে কয়েক লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে যাওয়ায় ব্যবসায়ীদের পড়তে হয়েছে ক্ষতির মুখে।

আন্দিউড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আতিকুর রহমান জানান, আন্দিউড়া ইউনিয়নের প্রায় সব কাঁচা রাস্তা নষ্ট হয়ে গেছে, পাকা রাস্তাগুলোরও বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও প্রায় একশ একর সবজির জমি পানিতে তলিয়ে ফসল নষ্ট হয়েছে। প্রায় সব পুকুর ডুবে পুকুরের মাছ ভেসে গেছে।

শাহজাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. পারভেজ হোসেন চৌধুরী জানান, ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় আড়াইশ একর জমির সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আন্দিউড়া ইউনিয়নের সঙ্গে যোগাযোগের পাকা রাস্তাটি নষ্ট হয়ে গেছে।

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম ফয়সাল সোনাই নদী ভাঙন এলাকা বুধবার সকালে পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি জানান, দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অনুরোধ করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করতে স্থানীয় চেয়ারম্যানদের বলা হয়েছে।

 

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সোনাই নদীর বাঁধ ভেঙে প্লাবিত গ্রামের পর গ্রাম

আপডেট সময় ১২:৩৩:০৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

ভারি বর্ষণ ও সীমান্তের ওপার থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে হবিগঞ্জের মাধবপুরে সোনাই নদীর বাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এতে কয়েক হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দিন ভর ভারি বর্ষণ হয়। এছাড়া সীমান্তের ওপার থেকে নেমে আসা পানির চাপে মঙ্গলবার রাতে ভেঙে যায় বাঁধ। এতে আন্দিউড়া, দুর্গাপুর, বার চান্দুরা, বাকশাইল, আন্দিউড়া, আড়িয়াসহ বিভিন্ন গ্রামের রাস্তা-ঘাট, জমির ফসল পানিতে নিমজ্জিত হয়ে যায়। ফলে আশপাশের গ্রামগুলোর লাখ লাখ মানুষের চলাচলে নেমে এসেছে দুর্ভোগ। এছাড়াও বিভিন্ন পুকুর থেকে কয়েক লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে যাওয়ায় ব্যবসায়ীদের পড়তে হয়েছে ক্ষতির মুখে।

আন্দিউড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আতিকুর রহমান জানান, আন্দিউড়া ইউনিয়নের প্রায় সব কাঁচা রাস্তা নষ্ট হয়ে গেছে, পাকা রাস্তাগুলোরও বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও প্রায় একশ একর সবজির জমি পানিতে তলিয়ে ফসল নষ্ট হয়েছে। প্রায় সব পুকুর ডুবে পুকুরের মাছ ভেসে গেছে।

শাহজাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. পারভেজ হোসেন চৌধুরী জানান, ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় আড়াইশ একর জমির সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। রাস্তাঘাটের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। আন্দিউড়া ইউনিয়নের সঙ্গে যোগাযোগের পাকা রাস্তাটি নষ্ট হয়ে গেছে।

মাধবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম ফয়সাল সোনাই নদী ভাঙন এলাকা বুধবার সকালে পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি জানান, দ্রুত ব্যবস্থা নিতে পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অনুরোধ করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করতে স্থানীয় চেয়ারম্যানদের বলা হয়েছে।