ঢাকা ০৬:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

সিএনজি চালকদের আতঙ্কের নাম কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের সোর্স সৈয়দ

সোর্স সৈয়দ সিএনজি চালকদের আতঙ্কের একটি নাম। এই সৈয়দ ছিলেন কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের ঝাড়ুদার দীর্ঘ দিন কাজ করে টি আই থেকে শুরু করে সার্জেনদের বিশ্বাস এর পাত্র হয়ে উঠে, জানা গেছে উক্ত ট্র্যাফিক বক্সের টি আই ও বিভিন্ন ট্র্যাফিক পুলিশের নাম দিয়ে মাসিক প্রতি সিএনজি ৩০০০থেকে ৪০০০ হাজার টাকা চাঁদা নেই এবং গাড়ি টু হলে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নাম মাত্র টাকা দিয়ে সৈয়দ ছাড়িয়ে নিয়ে আসে সিএনজি, নাম বলতে অনিচ্ছুক কয়েক জন সিএনজি চালক জানান সৈয়দ কে চাঁদা না দিলে সাথে সাথে টি আই কে দিয়ে বিভিন্ন রকম মামলা দিয়ে হয়রানি করে, এই বিষয়ে সৈয়দের মুটোফোনে ফোন করে তিনি কীসের টাকা তুলেন জানতে চাইলে তিনি সরাসরি বলে তিনি নাকি কর্নফুলী বক্সের টি আই এবং পুলিশের টাকা তুলেন, আমাদের প্রতিনিধি কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের ট্র্যাফিক ইনচার্জ মো. ফারুখের মুটোফোনে অনেক বার ফোন করে কোন সাড়া পাওয়া যায় নি এদিকে কর্নফুলী থানার অফিসার ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম এর মুটোফোনে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান উক্ত বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না তবে এই বিষয়টা যদি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে তিনি আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

জাফলং সহ গোয়াইনঘাটের সবকটি পর্যটন কেন্দ্র খুলে দেওয়া হল

সিএনজি চালকদের আতঙ্কের নাম কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের সোর্স সৈয়দ

আপডেট সময় ০৬:৩৫:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সোর্স সৈয়দ সিএনজি চালকদের আতঙ্কের একটি নাম। এই সৈয়দ ছিলেন কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের ঝাড়ুদার দীর্ঘ দিন কাজ করে টি আই থেকে শুরু করে সার্জেনদের বিশ্বাস এর পাত্র হয়ে উঠে, জানা গেছে উক্ত ট্র্যাফিক বক্সের টি আই ও বিভিন্ন ট্র্যাফিক পুলিশের নাম দিয়ে মাসিক প্রতি সিএনজি ৩০০০থেকে ৪০০০ হাজার টাকা চাঁদা নেই এবং গাড়ি টু হলে সরকারি রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে নাম মাত্র টাকা দিয়ে সৈয়দ ছাড়িয়ে নিয়ে আসে সিএনজি, নাম বলতে অনিচ্ছুক কয়েক জন সিএনজি চালক জানান সৈয়দ কে চাঁদা না দিলে সাথে সাথে টি আই কে দিয়ে বিভিন্ন রকম মামলা দিয়ে হয়রানি করে, এই বিষয়ে সৈয়দের মুটোফোনে ফোন করে তিনি কীসের টাকা তুলেন জানতে চাইলে তিনি সরাসরি বলে তিনি নাকি কর্নফুলী বক্সের টি আই এবং পুলিশের টাকা তুলেন, আমাদের প্রতিনিধি কর্নফুলী ট্র্যাফিক বক্সের ট্র্যাফিক ইনচার্জ মো. ফারুখের মুটোফোনে অনেক বার ফোন করে কোন সাড়া পাওয়া যায় নি এদিকে কর্নফুলী থানার অফিসার ইনচার্জ জহিরুল ইসলাম এর মুটোফোনে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান উক্ত বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না তবে এই বিষয়টা যদি সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে তিনি আইন গত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।