ঢাকা ১০:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উত্তর কোরিয়ার দরজায় পরমাণুচালিত মার্কিন রণতরী

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের উত্তর কোরিয়া সফর করেছেন। তার সফরের পরেই উত্তর কোরিয়ার দোরগোড়ায় পরমাণুচালিত মার্কিন বিমানবাহী রণতরী থিওডোর রুজভেল্টকে পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবারই দক্ষিণ কোরিয়ার বুসান বন্দরে নোঙর গাড়ে। উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় থিওডোর রুজভেল্টকে পারস্য উপসাগরে মোতায়েন করা হয়েছিল। অত্যাধুনিক মার্কিন এ বিমানবাহী রণতরী ইরাকি বাহিনীর জন্য দুঃস্বপ্নের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

তবে এবার ভিন্ন ভূমিকায় দেখা যাবে মার্কিন এ রণতরীকে। কিছুদিন পর দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের সঙ্গে মিলে যৌথ নৌ মহড়ায় অংশ নেবে থিওডোর রুজভেল্ট। গেল আগস্টেই এ তিন দেশের নেতারা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তারা এমন একটি নৌ মহড়া করবে। এ অঞ্চলে চীনের ক্রমবর্ধমান শক্তি বৃদ্ধি এবং উত্তর কোরিয়ার পরমাণু হুমকি মোকাবিলায় এমন মহড়ার ব্যাপারে একমত হয়েছিলেন দেশ তিনটির নেতারা।

এ নৌ মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘ফ্রিডম এজ’। তিন দেশের নৌবাহিনী ও সামুদ্রিক বাহিনী অ্যান্টি-সাবমেরিন ওয়্যারফেয়ার এবং এয়ার ডিফেন্স মহড়া চালাবে। এ তথ্য জানিয়েছেন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ নাইনের কমান্ডার মার্কিন রিয়ার অ্যাডমিরাল ক্রিস্টোফার অ্যালেকজান্ডার। এই মহড়ায় থিওডোর রুজভেল্ট কমান্ড শিপ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে বলেও জানান তিনি।

 

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

উত্তর কোরিয়ার দরজায় পরমাণুচালিত মার্কিন রণতরী

আপডেট সময় ১২:০১:৫৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের উত্তর কোরিয়া সফর করেছেন। তার সফরের পরেই উত্তর কোরিয়ার দোরগোড়ায় পরমাণুচালিত মার্কিন বিমানবাহী রণতরী থিওডোর রুজভেল্টকে পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শনিবারই দক্ষিণ কোরিয়ার বুসান বন্দরে নোঙর গাড়ে। উপসাগরীয় যুদ্ধের সময় থিওডোর রুজভেল্টকে পারস্য উপসাগরে মোতায়েন করা হয়েছিল। অত্যাধুনিক মার্কিন এ বিমানবাহী রণতরী ইরাকি বাহিনীর জন্য দুঃস্বপ্নের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

তবে এবার ভিন্ন ভূমিকায় দেখা যাবে মার্কিন এ রণতরীকে। কিছুদিন পর দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের সঙ্গে মিলে যৌথ নৌ মহড়ায় অংশ নেবে থিওডোর রুজভেল্ট। গেল আগস্টেই এ তিন দেশের নেতারা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তারা এমন একটি নৌ মহড়া করবে। এ অঞ্চলে চীনের ক্রমবর্ধমান শক্তি বৃদ্ধি এবং উত্তর কোরিয়ার পরমাণু হুমকি মোকাবিলায় এমন মহড়ার ব্যাপারে একমত হয়েছিলেন দেশ তিনটির নেতারা।

এ নৌ মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘ফ্রিডম এজ’। তিন দেশের নৌবাহিনী ও সামুদ্রিক বাহিনী অ্যান্টি-সাবমেরিন ওয়্যারফেয়ার এবং এয়ার ডিফেন্স মহড়া চালাবে। এ তথ্য জানিয়েছেন ক্যারিয়ার স্ট্রাইক গ্রুপ নাইনের কমান্ডার মার্কিন রিয়ার অ্যাডমিরাল ক্রিস্টোফার অ্যালেকজান্ডার। এই মহড়ায় থিওডোর রুজভেল্ট কমান্ড শিপ হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে বলেও জানান তিনি।