ঢাকা ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ভারতে বিষাক্ত মদপানে মৃত বেড়ে ৫৫, গ্রেফতার ১০

ভারতের তামিলনাড়ুতে বিষাক্ত মদপানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও অনেকে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় রাজ্যে বিষাক্ত মদ নিয়ে উদ্বেগ আরও বেড়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হেয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি সপ্তাহের শুরুতেই তামিলনাড়ুর রাজধানী চেন্নাই থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে কাল্লাকুরিচি জেলায় বিষাক্ত মদ পান করে ৩৭ জনের মৃত্যুর খবর মেলে। এরপর প্রতিদিনই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চলেছে।

শেষ খবর অনুযায়ী, এ ঘটনায় ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন তৃতীয় লিঙ্গের ও তিনজন নারীও রয়েছেন। অসুস্থদের মধ্যে এ পর্যন্ত তিনজন সুস্থ হলেও এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১১৭ জন। মৃত ও অসুস্থদের বেশিরভাগই জেলার করুণাপুরম এলাকার বাসিন্দা।

সন্তানহারা এক নারী বলেন, ‘আগের রাতে আমার ছেলে মদ খেয়ে এসেছিল। বাড়ি ফেরার পর থেকেই ওর পেটে অসহ্য যন্ত্রণা শুরু হয়। এমনকি চোখও খুলতে পারছিল না। হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রথমে ভর্তি নিতে অস্বীকার করে চিকিৎসকরা। পরে ভর্তি নেওয়া হয়, কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যায়। রাজ্য সরকারের উচিত সবগুলো মদের দোকান বন্ধ করে দেওয়া।’

আরেক নারী দাবি করেন, বিষাক্ত মদ পান করার পর তার ছেলে যন্ত্রণায় ছটফট করছিল। চোখে কিছু দেখতে পাচ্ছিল না, কানেও শুনতে পাচ্ছিল না।

এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে চারজন বিষাক্ত মদ কারবারিসহ ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘তারা ঠিক কী পান করেছিল, তা আমরা তদন্ত করে দেখছি। যাদের মৃত্যু হয়েছে, তাদের অধিকাংশই ব্যক্তিগত মাধ্যম ব্যবহার করে মদ কিনেছিল। কোনো সরকার পরিচালিত মদের দোকান থেকে কেনেনি।’

এদিকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কাল্লাকুরিচি পুলিশ সুপার সময় সিং মীনাসহ চার পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি বিষাক্ত মদকাণ্ডের তদন্তভার সিআইডিকে দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সামাজিকমাধ্যম এক্সে এক শোকবার্তায় তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন বলেছেন, ‘অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। যেসব কর্মকর্তা এটি প্রতিরোধে ব্যর্থ হয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা বিষয়টি শক্ত হাতে দমন করব।’

 

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ভারতে বিষাক্ত মদপানে মৃত বেড়ে ৫৫, গ্রেফতার ১০

আপডেট সময় ১২:১৮:৫০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪

ভারতের তামিলনাড়ুতে বিষাক্ত মদপানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৫ জনে দাঁড়িয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও অনেকে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় রাজ্যে বিষাক্ত মদ নিয়ে উদ্বেগ আরও বেড়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে এ পর্যন্ত ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হেয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, চলতি সপ্তাহের শুরুতেই তামিলনাড়ুর রাজধানী চেন্নাই থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরে কাল্লাকুরিচি জেলায় বিষাক্ত মদ পান করে ৩৭ জনের মৃত্যুর খবর মেলে। এরপর প্রতিদিনই মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে চলেছে।

শেষ খবর অনুযায়ী, এ ঘটনায় ৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন তৃতীয় লিঙ্গের ও তিনজন নারীও রয়েছেন। অসুস্থদের মধ্যে এ পর্যন্ত তিনজন সুস্থ হলেও এখনো হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১১৭ জন। মৃত ও অসুস্থদের বেশিরভাগই জেলার করুণাপুরম এলাকার বাসিন্দা।

সন্তানহারা এক নারী বলেন, ‘আগের রাতে আমার ছেলে মদ খেয়ে এসেছিল। বাড়ি ফেরার পর থেকেই ওর পেটে অসহ্য যন্ত্রণা শুরু হয়। এমনকি চোখও খুলতে পারছিল না। হাসপাতালে নিয়ে গেলে প্রথমে ভর্তি নিতে অস্বীকার করে চিকিৎসকরা। পরে ভর্তি নেওয়া হয়, কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে যায়। রাজ্য সরকারের উচিত সবগুলো মদের দোকান বন্ধ করে দেওয়া।’

আরেক নারী দাবি করেন, বিষাক্ত মদ পান করার পর তার ছেলে যন্ত্রণায় ছটফট করছিল। চোখে কিছু দেখতে পাচ্ছিল না, কানেও শুনতে পাচ্ছিল না।

এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে চারজন বিষাক্ত মদ কারবারিসহ ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, ‘তারা ঠিক কী পান করেছিল, তা আমরা তদন্ত করে দেখছি। যাদের মৃত্যু হয়েছে, তাদের অধিকাংশই ব্যক্তিগত মাধ্যম ব্যবহার করে মদ কিনেছিল। কোনো সরকার পরিচালিত মদের দোকান থেকে কেনেনি।’

এদিকে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কাল্লাকুরিচি পুলিশ সুপার সময় সিং মীনাসহ চার পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পাশাপাশি বিষাক্ত মদকাণ্ডের তদন্তভার সিআইডিকে দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সামাজিকমাধ্যম এক্সে এক শোকবার্তায় তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্ট্যালিন বলেছেন, ‘অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। যেসব কর্মকর্তা এটি প্রতিরোধে ব্যর্থ হয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আমরা বিষয়টি শক্ত হাতে দমন করব।’