ঢাকা ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শতকোটি টাকার মালিক সেই কর কর্মকর্তা ফয়সাল এনবিআর থেকে ‘অবমুক্ত’

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) থেকে ‘অবমুক্ত’ করা হয়েছে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত প্রথম সচিব (কর) কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালকে। বৃহস্পতিবার তাকে অবমুক্ত করে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়।
গত ২৭ জুন ঢাকার আদালতের কাছে কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিবরণ তুলে ধরে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কাজী ফয়সাল ও তার স্ত্রীর নামে থাকা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে ৫ কাঠার দুটি প্লট, শ্বশুরের নামে থাকা ঢাকার রমনা এলাকায় একটি ফ্ল্যাট, খিলগাঁওয়ে শাশুড়ির নামে ১০ কাঠা প্লট জব্দের আদেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত।

এছাড়া এই কর কর্মকর্তা ও তার আত্মীয়-স্বজনের নামে ১৯টি ব্যাংক ও একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে থাকা ৮৭টি হিসাব অবরুদ্ধ করার আদেশ দেওয়া হয়েছে। আদালতের আদেশে বলা হয়, এই জব্দের আদেশ কার্যকর থাকা অবস্থায় এসব সম্পদ হস্তান্তর বা বিনিময় করা যাবে না।

আদালতে দদকের পক্ষ থেকে কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিবরণ তুলে ধরার পর তাকে গত ৩০ জুন বগুড়া কর অঞ্চলের পরিদর্শী রেঞ্জ-১ এ বদলি করা হয়।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

শতকোটি টাকার মালিক সেই কর কর্মকর্তা ফয়সাল এনবিআর থেকে ‘অবমুক্ত’

আপডেট সময় ০৪:২০:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জুলাই ২০২৪

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) থেকে ‘অবমুক্ত’ করা হয়েছে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত প্রথম সচিব (কর) কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালকে। বৃহস্পতিবার তাকে অবমুক্ত করে এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়।
গত ২৭ জুন ঢাকার আদালতের কাছে কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিবরণ তুলে ধরে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কাজী ফয়সাল ও তার স্ত্রীর নামে থাকা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জে ৫ কাঠার দুটি প্লট, শ্বশুরের নামে থাকা ঢাকার রমনা এলাকায় একটি ফ্ল্যাট, খিলগাঁওয়ে শাশুড়ির নামে ১০ কাঠা প্লট জব্দের আদেশ দিয়েছেন ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালত।

এছাড়া এই কর কর্মকর্তা ও তার আত্মীয়-স্বজনের নামে ১৯টি ব্যাংক ও একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে থাকা ৮৭টি হিসাব অবরুদ্ধ করার আদেশ দেওয়া হয়েছে। আদালতের আদেশে বলা হয়, এই জব্দের আদেশ কার্যকর থাকা অবস্থায় এসব সম্পদ হস্তান্তর বা বিনিময় করা যাবে না।

আদালতে দদকের পক্ষ থেকে কাজী আবু মাহমুদ ফয়সালের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিবরণ তুলে ধরার পর তাকে গত ৩০ জুন বগুড়া কর অঞ্চলের পরিদর্শী রেঞ্জ-১ এ বদলি করা হয়।