ঢাকা ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় ডাকাতি।

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় ডাকাতি।

মোঃ মামুন হোসাইন।
পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালীর বাউফলে মুখোশধারী ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে মুক্তিযোদ্ধার বাসা ডাকতি করার সংবাদ পাওয়া গেছে।

রবিবার (১৯”নভেম্বর-২৩ ইং) তারিখ দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টার দিকে উপজেলার ৭ নং বগা ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। হয়েছে। এঘটনায় ঐ রাতেই বাউফলের সিনিয়র (এএসপি), থানার অফিসার ইনচার্জ ও বগা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের মেঝ ছেলে মোঃ মাসুদ প্রতিবেদককে জানায়, তাদের বাসার দোতালা ভবনের পশ্চিম পাশে আম গাছ বেয়ে উঠে জানালার গ্রীল কেটে ৮-১০ জন মুখোশপড়া ডাকাত দলের সদস্যরা ভিতরে প্রবেশ করে। পরে নিচতলায় গিয়ে তার পিতা আলহাজ্ব চান মিয়া মাস্টার (৭১) ও তার মা আলহাজ্ব ফরিদা খাতুন (৬৬) কে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুজনকে রুমের ভিতর হাত-পা বেধে ফেলে। এর পর তাদের কাছে স্টীল আলমারির চাবি চাইলে চাবি দিতে অস্বীকার করায় ডাকাতরা তার তাদের মারধর করে অস্ত্র দেখিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ভয়ে তার স্টীল আলমারির চাবি দিলে ডাকাতরা আলমারি খুলে নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা ও পাঁচ-ছয় ভড়ি স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতরা বাসার অন্যান্য মালামালও তচনচ করে ডাকাতি শেষে নিচতলার সামনের দরজা খুলে চলে যায়। তিনি আরও বলেন, ঘটনার দিন পরিবারের সবাই বরিশলা থাকায় বাসায় তার মা-বাবা ছাড়া অন্য কেউ ছিলনা। ডাকাতরা চলে যাওয়ার পর তার-বাবা ও মা ডাক চিৎিকার দিলে এলাকার লোকজন ছুটে এসে তাদের বাসায় জড়ো হন।

মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া বলেন রাতে আমরা বাসায় স্বামী স্ত্রী দুজনে ছিলাম এঘটনা পরিকল্পিত জেনে শুনে সুযোগ বুজে রাতে বাসায় ঢুকে ডাকতি করে ডাকাতদল। তবে এরা বেশি দুরের কেউ নয় মুখোপড়া থাকায় কাউকে শনাক্ত করতে পারেনি বলে জানান।

এ ঘটনায় বগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান বলেন,‘ শুনেছি চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ইদানিং চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় সাধারন মানুষ আতংকের মধ্যে আছে বলে জানান।

এ ব্যাপারে বগা পুলিশ তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ ইমতিয়াজ আহম্মেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘ খবর পেয়ে রাতেই বাউফল সার্কেলের সিনিয়র এএসপি, বাউফল থানার ওসিকে সহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় ডাকাতি।

আপডেট সময় ০৭:৩৮:৫২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩

বাউফলে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় ডাকাতি।

মোঃ মামুন হোসাইন।
পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালীর বাউফলে মুখোশধারী ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত পা বেঁধে মুক্তিযোদ্ধার বাসা ডাকতি করার সংবাদ পাওয়া গেছে।

রবিবার (১৯”নভেম্বর-২৩ ইং) তারিখ দিবাগত রাত আনুমানিক ১২ টার দিকে উপজেলার ৭ নং বগা ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। হয়েছে। এঘটনায় ঐ রাতেই বাউফলের সিনিয়র (এএসপি), থানার অফিসার ইনচার্জ ও বগা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া মাস্টারের মেঝ ছেলে মোঃ মাসুদ প্রতিবেদককে জানায়, তাদের বাসার দোতালা ভবনের পশ্চিম পাশে আম গাছ বেয়ে উঠে জানালার গ্রীল কেটে ৮-১০ জন মুখোশপড়া ডাকাত দলের সদস্যরা ভিতরে প্রবেশ করে। পরে নিচতলায় গিয়ে তার পিতা আলহাজ্ব চান মিয়া মাস্টার (৭১) ও তার মা আলহাজ্ব ফরিদা খাতুন (৬৬) কে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে দুজনকে রুমের ভিতর হাত-পা বেধে ফেলে। এর পর তাদের কাছে স্টীল আলমারির চাবি চাইলে চাবি দিতে অস্বীকার করায় ডাকাতরা তার তাদের মারধর করে অস্ত্র দেখিয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ভয়ে তার স্টীল আলমারির চাবি দিলে ডাকাতরা আলমারি খুলে নগদ প্রায় তিন লাখ টাকা ও পাঁচ-ছয় ভড়ি স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতরা বাসার অন্যান্য মালামালও তচনচ করে ডাকাতি শেষে নিচতলার সামনের দরজা খুলে চলে যায়। তিনি আরও বলেন, ঘটনার দিন পরিবারের সবাই বরিশলা থাকায় বাসায় তার মা-বাবা ছাড়া অন্য কেউ ছিলনা। ডাকাতরা চলে যাওয়ার পর তার-বাবা ও মা ডাক চিৎিকার দিলে এলাকার লোকজন ছুটে এসে তাদের বাসায় জড়ো হন।

মুক্তিযোদ্ধা চান মিয়া বলেন রাতে আমরা বাসায় স্বামী স্ত্রী দুজনে ছিলাম এঘটনা পরিকল্পিত জেনে শুনে সুযোগ বুজে রাতে বাসায় ঢুকে ডাকতি করে ডাকাতদল। তবে এরা বেশি দুরের কেউ নয় মুখোপড়া থাকায় কাউকে শনাক্ত করতে পারেনি বলে জানান।

এ ঘটনায় বগা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান বলেন,‘ শুনেছি চান মিয়া মাস্টারের বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে। ইদানিং চুরি-ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় সাধারন মানুষ আতংকের মধ্যে আছে বলে জানান।

এ ব্যাপারে বগা পুলিশ তদন্ত কেন্দের ইনচার্জ ইমতিয়াজ আহম্মেদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,‘ খবর পেয়ে রাতেই বাউফল সার্কেলের সিনিয়র এএসপি, বাউফল থানার ওসিকে সহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।