ইউপি সদস্যদের ফল প্রকাশে ক্ষোভ প্রকাশ

দৈনিক আমাদের মাতৃভূমি
১৮ জুন ২০২২, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন
Link Copied!

বিশেষ প্রতিনিধি

পুনরায় নির্বাচনের দাবিতে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়,ইছাদিঘী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রের ফলাফল নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ তিন প্রার্থীর টাঙ্গাইল জেলা সখিপুর উপজেলার ৩ নং গজারিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পুরুষ ইউপি সদস্য প্রার্থীর মধ্যে চলছে ক্ষোভ প্রকাশ,সরেজমিনে দেখা যায়,ইছাদিঘী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্রে সারাদিনব্যাপী উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ,ভোটাররা সারাদিনব্যাপী ভোট দেওয়ার জন্য উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে আসে,তবে নির্বাচনী ফলাফল প্রকাশ করার পর থেকে শুরু হয় প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ এলাকার মধ্যে সাড়া পড়ে যায়। 


একটি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সাধারণ মানুষের মনে চলছে নানান প্রশ্ন ,ইভিএম পদ্ধতিতে মানুষ ভোট দিতে পেরে অনেকেই সন্তোষ প্রকাশ করলেও ফলাফলের পর মানুষের মনে স্বস্তি নেই ,তালা মার্কা প্রতীকের মোঃ সিরাজুল ইসলাম কে অনিয়ম ভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে বলে এমনটাই দাবি,তিনজন মেম্বার পদপ্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের,বিষয়টি নিয়ে ইছাদিঘী বাজারে একটি প্রতিবাদ মিছিল হয়, পরবর্তীতে ইছাদিঘী আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ,মানববন্ধনে মোঃ জামাল মিয়া মোরগ প্রতীকে নির্বাচন করেছেন, তিনি বলেন ,সারাদিন ভোটের পরিবেশ ভালো থাকলেও অনিয়ম ভাবে মোঃ সিরাজুল ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করেছে একটি কুচক্র মহল, আমাদের এজেন্টদেরকে ভয় দেখিয়ে স্বাক্ষর নিয়ে, ডিজিটালে কোন প্রকার স্ক্রিনে কোনো ফলাফল না দেখিয়ে মিথ্যা বানোয়াট একটি ফল প্রকাশ করায়, আমরা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই, আমরা তার জন্য মানববন্ধন করেছি, আমরা আইনত লড়াই করবো, এবং একটি সত্য প্রকাশ করবো যে, এখানে অনিয়মের মাধ্যমে ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে, 


আমরা ডিজিটাল পদ্ধতিতে ইভিএমের যে ভোট হয়ছে সেই সংখ্যাটি আমরা নিজ চোখে দেখতে চাই,মোহাম্মদ জনু মিয়া টিউবওয়েল প্রতীকে ২নং ওয়ার্ড থেকে মেম্বার পদে নির্বাচন করেছেন,জনু মিয়া বলেন, আমি একজন মেম্বার পদপ্রার্থী হয়ে আজ সারাদিন পরিশ্রমের পর শেষ পর্যন্ত আমাদের একটি প্রতারক চক্রের মাধ্যমে একটি মিথ্যা বানোয়াট  ফলাফলের জন্য আমাদের সকলের ঘুম হারাম হয়ে গেছে, আমরা এ ধরনের ,প্রতারণার শিকার হযই, সরাসরি আমরা উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই ,পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি। 

আমাদের ভোটের অধিকার হরণ না হয়, সেদিকে লক্ষ্য রেখে যারা দায়িত্বে ছিলেন তাদের বিরুদ্ধে যেন আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হয়, এমনটাই জানিয়েছেন মোহাম্মদ জনু মিয়া, মোহাম্মদ নাসির মিয়া বলেন আমি দুই নং ওয়ার্ড থেকে ফুটবল প্রতীকেনির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছি  ,আমরা পুনরায় আবার ও ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার প্রার্থীদের মধ্যে নির্বাচন চাই, এই নির্বাচন আমরা বয়কট করি, এই নির্বাচনী ফলাফলে আমাদের কারো আস্থা নেই ,,উপজেলা নির্বাচন অফিসার এর কাছে আমাদের একটাই দাবি যেন  আমাদের এই কেন্দ্রে আবারো নির্বাচনটি দেওয়া হয়,২নং ওয়ার্ডের সর্বস্তরের জনগণের দাবি দ্রুত যেন এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে সঠিক তদন্ত করে দেখে পুনরায় নির্বাচন দেওয়া হয়।