ঢাকা ০৩:৪১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দ্বারপ্রান্তে আনোয়ার ইব্রাহিম

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়ায় সংসদ নির্বাচনে কোনো জোট একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। ফলে শনিবার (১৯ নভেম্বর) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পাঁচদিন পার হয়ে গেলেও এখনো দেশটিতে নতুন সরকার গঠিত হয়নি। তবে আজ বৃহস্পতিবারই এ বিষয়ের ফয়সালা হয়ে যেতে পারে।

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আজ দেশটির দুই বৃহত্তর জোট সংস্কারবাদী আনোয়ার ইব্রাহিমের হারাপান কোয়ালিশন এবং সাবেক সরকার দলীয় জোট ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন একটি রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছাতে পারে। এতে করে আনোয়ার প্রধানমন্ত্রী হবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম এবিসি নিউজ তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দ্বারপ্রান্তে আছেন আনোয়ার।

এবারের সংসদ নির্বাচনে আনোয়ার ইব্রাহিমের পাকাতান হারাপান কোয়ালিশন সর্বোচ্চ ৮২টি এবং ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন ৩০টি আসনে জয়ী হয়। অন্যদিকে রক্ষণশীল মুহিদ্দিন ইয়াসিনের পেরিকাতান ন্যাশনাল ব্লক ৭৩টি আসনে জয় পায়। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে সংসদের ২২২টি আসনের মধ্যে অন্তত ১১২টি আসনে জয় পেতে হবে। যা কোনো দলই পায়নি।

ফলে এখন দেখা যাচ্ছে ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন যাকে সমর্থন দেবে সেই জোটই সরকার গঠন করার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে।

বারিসান জোটের একটি অংশ ইঙ্গিত দিয়েছে তারা আনোয়ার ইব্রাহিমকে সমর্থন দেবে। যদিও নির্বাচন শেষে বারিসানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, তারা কারও সঙ্গে যোগ দেবে না। কিন্তু এখন সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে তারা।

এদিকে রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনে আজ বৃহস্পতিবার সুলতানদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মালয়েশিয়ার রাজা আল-সুলতান আব্দুল্লাহ। যদি রাজনৈতিক দলগুলো কোনো সমঝোতায় পৌঁছাতে না পারে তখন তিনি ঠিক করবেন কে মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন। স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় এ বৈঠক শুরু হয়ে তিন ঘণ্টা স্থায়ী হবে বলে জানিয়েছে দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

মালয়েশিয়ায় রাজার পদটি আলংকারিক হলেও রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী বাঁছাই করার ক্ষমতা তার আছে।

এর আগে বুধবার (২৩ নভেম্বর) আনোয়ার ইব্রাহিম এবং মুহিদ্দিনকে জোট বেধে সরকার গঠনের আহ্বান জানিয়েছিলেন রাজা আল-সুলতান আব্দুল্লাহ। কিন্তু মুহিদ্দিন এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

মুহিদ্দিনের জোটে রয়েছে রক্ষণশীল ইসলামিক দল প্যান-মালয়েশিয়ান ইসলামিক পার্টি। যেটি ৪৯টি আসন পেয়েছে। যদি মুহিদ্দিন ক্ষমতায় আসতেন তাহলে এই ইসলামিক দলটি মালয়েশিয়ায় ইসলামিক শাসন কায়েমের চেষ্টা চালাত। কিন্তু আপাতত তাদের ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা নেই।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দ্বারপ্রান্তে আনোয়ার ইব্রাহিম

আপডেট সময় ১০:২৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর ২০২২

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়ায় সংসদ নির্বাচনে কোনো জোট একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি। ফলে শনিবার (১৯ নভেম্বর) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার পাঁচদিন পার হয়ে গেলেও এখনো দেশটিতে নতুন সরকার গঠিত হয়নি। তবে আজ বৃহস্পতিবারই এ বিষয়ের ফয়সালা হয়ে যেতে পারে।

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আজ দেশটির দুই বৃহত্তর জোট সংস্কারবাদী আনোয়ার ইব্রাহিমের হারাপান কোয়ালিশন এবং সাবেক সরকার দলীয় জোট ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন একটি রাজনৈতিক সমঝোতায় পৌঁছাতে পারে। এতে করে আনোয়ার প্রধানমন্ত্রী হবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম এবিসি নিউজ তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দ্বারপ্রান্তে আছেন আনোয়ার।

এবারের সংসদ নির্বাচনে আনোয়ার ইব্রাহিমের পাকাতান হারাপান কোয়ালিশন সর্বোচ্চ ৮২টি এবং ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন ৩০টি আসনে জয়ী হয়। অন্যদিকে রক্ষণশীল মুহিদ্দিন ইয়াসিনের পেরিকাতান ন্যাশনাল ব্লক ৭৩টি আসনে জয় পায়। সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে হলে সংসদের ২২২টি আসনের মধ্যে অন্তত ১১২টি আসনে জয় পেতে হবে। যা কোনো দলই পায়নি।

ফলে এখন দেখা যাচ্ছে ইসমাইল ইয়াকোবের বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন যাকে সমর্থন দেবে সেই জোটই সরকার গঠন করার মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে।

বারিসান জোটের একটি অংশ ইঙ্গিত দিয়েছে তারা আনোয়ার ইব্রাহিমকে সমর্থন দেবে। যদিও নির্বাচন শেষে বারিসানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, তারা কারও সঙ্গে যোগ দেবে না। কিন্তু এখন সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে তারা।

এদিকে রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনে আজ বৃহস্পতিবার সুলতানদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মালয়েশিয়ার রাজা আল-সুলতান আব্দুল্লাহ। যদি রাজনৈতিক দলগুলো কোনো সমঝোতায় পৌঁছাতে না পারে তখন তিনি ঠিক করবেন কে মালয়েশিয়ার পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন। স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় এ বৈঠক শুরু হয়ে তিন ঘণ্টা স্থায়ী হবে বলে জানিয়েছে দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

মালয়েশিয়ায় রাজার পদটি আলংকারিক হলেও রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী বাঁছাই করার ক্ষমতা তার আছে।

এর আগে বুধবার (২৩ নভেম্বর) আনোয়ার ইব্রাহিম এবং মুহিদ্দিনকে জোট বেধে সরকার গঠনের আহ্বান জানিয়েছিলেন রাজা আল-সুলতান আব্দুল্লাহ। কিন্তু মুহিদ্দিন এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেন।

মুহিদ্দিনের জোটে রয়েছে রক্ষণশীল ইসলামিক দল প্যান-মালয়েশিয়ান ইসলামিক পার্টি। যেটি ৪৯টি আসন পেয়েছে। যদি মুহিদ্দিন ক্ষমতায় আসতেন তাহলে এই ইসলামিক দলটি মালয়েশিয়ায় ইসলামিক শাসন কায়েমের চেষ্টা চালাত। কিন্তু আপাতত তাদের ক্ষমতায় আসার সম্ভাবনা নেই।