ঢাকা ১২:১৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩, ৮ চৈত্র ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
উত্তরায় বিডিআর কাঁচাবাজারে চাঁদাবাজির অভিযোগে ব্যবসায়ী সমিতির নেতাসহ আটক-২ ডিরেক্টরস গিল্ডের স্বপথ অনুষ্ঠান শার্শায় বিজিবির তৎপরতায় বিপুল পরিমাণ ভারতীয় ইয়াবা উদ্ধার কুমিল্লায় পুলিশের অভিযানে ০৩ জন ছিনতাইকারী গ্রেফতার প্রয়াত সাংবাদিক জালাল উদ্দিনের পরিবারকে সহায়তার চেক প্রদান ডাকাতির প্রস্তুতিকালে ৫ ডাকাত গ্রেফতার ও দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার একশো পরিবার পেল ‘স্বপ্নের নীড়’ সবুজের বুকে লাল আশ্রয়ন বুধবার দৃশ্যমান নওয়াগাঁও প্রকল্প উদ্বোধন মৌতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২০২৩ সালের পরীক্ষার্থীদের বিদায় ও ষষ্ঠ শ্রেণীর নবীন বরণ অনুষ্ঠিত সাপাহারে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমিসহ ঘর পেল আরও ৯৬ টি ভূমিহীন পরিবার

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কার্যকর পদক্ষেপ নি‌তে জাতিসংঘকে আহ্বান

দে‌শে আশ্রিত রো‌হিঙ্গা‌দের রাখাইনে প্রত্যাবাসনসহায়ক পরিবেশ তৈরিতে জাতিসংঘকে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানি‌য়ে‌ছে বাংলা‌দেশ।

বৃহস্প‌তিবার (১০ ন‌ভেম্বর) ভাসানচ‌রে অনু‌ষ্ঠিত ৪০তম জাতীয় টাস্ক ফোর্সের সভায় জা‌তিসং‌ঘের প্রতি এ আহ্বান জানান পররাষ্ট্রস‌চিব মাসুদ বিন মোমেন। পররাষ্ট্রস‌চিবের সভাপতিত্বে টাস্ক ফোর্সের সভায় শরণার্থী ত্রাণ ও  প্রত্যাবাসন কমিশনার, ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিচালকসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, দপ্তর, সংস্থার প্রতিনিধিগণ এবং বাংলাদেশে কর্মরত জাতিসংঘের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের প্রতিনিধিগণ সশরী‌রে এবং ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

সভাপতি উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে ভাসানচরের বাস্তবায়িত অনুকরণীয় উন্নয়নের প্রশংসা ক‌রে ব‌লেন, ঘূর্ণিঝড়সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ সত্ত্বেও ভাসানচরের স্থায়িত্ব প্রমাণ করেছে।

জাতিসংঘের পক্ষ থেকেও ভাসানচরে বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধার প্রশংসা করা হয়। সভায় কক্সবাজারে এবং ভাসানচরে অবস্থানরত জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের মানবিক সহায়তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়।

পররাষ্ট্রস‌চিব ব‌লেন, জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের  মিয়ানমারে টেকসই প্রত্যাবাসন এ সমস্যার একমাত্র সমাধান।

সভায় এলপিজি, খাদ্যসহ বিভিন্ন সেক্টরে জাতিসংঘের সংস্থাগু‌লো‌কে অধিকতর ও কার্যকর ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানানো হয়। জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের জন্য মানবিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় তহবিলের ব্যবস্থা করতে জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

মানবিক সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশে যেসব শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে তা তাদের প্রত্যাবাসনের পরে রাখাইন সমাজে টেকসই সহাবস্থানে সহায়ক হবে বলে মনে করেন মাসুদ বিন মোমেন।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

উত্তরায় বিডিআর কাঁচাবাজারে চাঁদাবাজির অভিযোগে ব্যবসায়ী সমিতির নেতাসহ আটক-২

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে কার্যকর পদক্ষেপ নি‌তে জাতিসংঘকে আহ্বান

আপডেট সময় ০৭:৪২:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১১ নভেম্বর ২০২২

দে‌শে আশ্রিত রো‌হিঙ্গা‌দের রাখাইনে প্রত্যাবাসনসহায়ক পরিবেশ তৈরিতে জাতিসংঘকে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানি‌য়ে‌ছে বাংলা‌দেশ।

বৃহস্প‌তিবার (১০ ন‌ভেম্বর) ভাসানচ‌রে অনু‌ষ্ঠিত ৪০তম জাতীয় টাস্ক ফোর্সের সভায় জা‌তিসং‌ঘের প্রতি এ আহ্বান জানান পররাষ্ট্রস‌চিব মাসুদ বিন মোমেন। পররাষ্ট্রস‌চিবের সভাপতিত্বে টাস্ক ফোর্সের সভায় শরণার্থী ত্রাণ ও  প্রত্যাবাসন কমিশনার, ভাসানচর আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিচালকসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, দপ্তর, সংস্থার প্রতিনিধিগণ এবং বাংলাদেশে কর্মরত জাতিসংঘের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের প্রতিনিধিগণ সশরী‌রে এবং ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

সভাপতি উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে ভাসানচরের বাস্তবায়িত অনুকরণীয় উন্নয়নের প্রশংসা ক‌রে ব‌লেন, ঘূর্ণিঝড়সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ সত্ত্বেও ভাসানচরের স্থায়িত্ব প্রমাণ করেছে।

জাতিসংঘের পক্ষ থেকেও ভাসানচরে বিদ্যমান সুযোগ-সুবিধার প্রশংসা করা হয়। সভায় কক্সবাজারে এবং ভাসানচরে অবস্থানরত জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের মানবিক সহায়তার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা হয়।

পররাষ্ট্রস‌চিব ব‌লেন, জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের  মিয়ানমারে টেকসই প্রত্যাবাসন এ সমস্যার একমাত্র সমাধান।

সভায় এলপিজি, খাদ্যসহ বিভিন্ন সেক্টরে জাতিসংঘের সংস্থাগু‌লো‌কে অধিকতর ও কার্যকর ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানানো হয়। জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিকদের জন্য মানবিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় তহবিলের ব্যবস্থা করতে জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

মানবিক সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি রোহিঙ্গাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশে যেসব শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে তা তাদের প্রত্যাবাসনের পরে রাখাইন সমাজে টেকসই সহাবস্থানে সহায়ক হবে বলে মনে করেন মাসুদ বিন মোমেন।