ঢাকা ১০:৩১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

নামাজ পড়ে ফেরার পথে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় নামাজ পড়ে বাড়ি ফেরার পথে শাহজাহান আলী (৬৫) নামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

ওইদিন সকালের দিকে ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হন তিনি। মৃত শাহজাহান কুমারখালী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামের মৃত ইয়াকুব মিস্ত্রির ছেলে। একই গ্রামের আইচ উদ্দিনের সঙ্গে বালু কেনাবেচাকে কেন্দ্র করে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শাহজাহানের ছেলে সজিব বলেন, আমার আব্বার সাথে আইচ উদ্দিনের বিরোধ চলছিল। গত সোমবার সন্ধ্যায় তার বাড়িতে সালিশ বৈঠকে উভয়ের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি করা হয়। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে মঙ্গলবার সকালে বাবার ওপর আইচ উদ্দিন ও তার ছেলেরা লাঠি, হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সে মারা যায়। আমার বাবাকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমারখালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসীন হোসাইন বলেন, একই গ্রামের আইচ উদ্দিনের সঙ্গে শাহজাহানের বালু কেনাবেচা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বৃদ্ধকে লাঠি ও হাতুড়ি দিয়ে মারপিট করে আইচ উদ্দিন ও তার লোকজন। এতে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। আসামিরা পলাতক রয়েছে। খুব শীঘ্রই হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করা হবে।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আ.লীগ নয়, বিএনপির প্রধান শত্রু জনগণ : শেখ পরশ

নামাজ পড়ে ফেরার পথে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা

আপডেট সময় ১২:২৭:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৯ নভেম্বর ২০২২

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায় নামাজ পড়ে বাড়ি ফেরার পথে শাহজাহান আলী (৬৫) নামে এক বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার (৮ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

ওইদিন সকালের দিকে ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামে প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হন তিনি। মৃত শাহজাহান কুমারখালী উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের গোবরা গ্রামের মৃত ইয়াকুব মিস্ত্রির ছেলে। একই গ্রামের আইচ উদ্দিনের সঙ্গে বালু কেনাবেচাকে কেন্দ্র করে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শাহজাহানের ছেলে সজিব বলেন, আমার আব্বার সাথে আইচ উদ্দিনের বিরোধ চলছিল। গত সোমবার সন্ধ্যায় তার বাড়িতে সালিশ বৈঠকে উভয়ের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি করা হয়। কিন্তু পরিকল্পিতভাবে মঙ্গলবার সকালে বাবার ওপর আইচ উদ্দিন ও তার ছেলেরা লাঠি, হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সে মারা যায়। আমার বাবাকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কুমারখালী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহসীন হোসাইন বলেন, একই গ্রামের আইচ উদ্দিনের সঙ্গে শাহজাহানের বালু কেনাবেচা নিয়ে বিরোধ চলছিল। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে বৃদ্ধকে লাঠি ও হাতুড়ি দিয়ে মারপিট করে আইচ উদ্দিন ও তার লোকজন। এতে গুরুতর আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। আসামিরা পলাতক রয়েছে। খুব শীঘ্রই হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার করা হবে।