ঢাকা ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আসিয়ানের চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হলেন বিন্তি তুয়ান মাত

আসিয়ানের চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতি টেংকু মায়মুন বিন্তি তুয়ান মাত। তিনি ২০২৪ সাল পর্যন্ত আসিয়ান চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের (সিএসিজে) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন।

রোববার (৬ নভেম্বর) মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রারের কার্যালয় জানিয়েছে, ৪ ও ৫ নভেম্বর রাজধানী কুয়ালালামপুরে গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে দুই দিনব্যাপী দশম বৈঠকের পরে প্রধান বিচারপতিকে এই নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ার বিচার বিভাগকে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্কিং গ্রুপের নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রথমটি হলো আসিয়ানের মধ্যে সিভিল প্রসেসগুলোর সুবিধা দেওয়ার ওপর সিএসিজে ওয়ার্কিং গ্রুপ, যার নেতৃত্বে মালায়ার সাবেক প্রধান বিচারপতি আজহার মোহাম্মদ।

দ্বিতীয়টি হলো কেস ম্যানেজমেন্ট এবং কোর্ট টেকনোলজি সম্পর্কিত সিএসিজে ওয়ার্কিং গ্রুপ, যার সভাপতিত্ব করেন সাবাহ এবং সারাওয়াকের প্রধান বিচারক আবং ইস্কান্দার আবং হাশিম।

বিচারপতি তুয়ান মাত ১৯৫৯ সালের ২ জুলাই কেলান্তানের কোটা ভারুতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মালয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন পড়েন এবং ১৯৮২ সালে অনার্সসহ স্নাতক করেন। ১৯৮২ সালে সাউদার্ন কেলান্টান ডেভেলপমেন্ট বোর্ডে (কেসেডার) আইনি কর্মকর্তা হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরে ১৯৮৪ সালে সেরেম্বান, নেগেরি সেম্বিলান মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলের আইনি অফিসার হিসাবে।

তার লেডিশিপ অ্যাটর্নি-জেনারেল চেম্বারের ড্রাফটিং ডিভিশনে ১৯৮৬ সালে সহকারী সংসদীয় ড্রাফ্টসম্যান হিসাবে বিচার বিভাগীয় ও আইনি পরিষেবায় যোগদান করেন। পরে, পোর্ট ডিকসন কোর্টে ম্যাজিস্ট্রেট, কুয়ালা তেরেঙ্গানু লিগ্যাল এইড ব্যুরোর একজন ফেডারেল কাউন্সেল, সেরেম্বানে হাইকোর্টের সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার, কুয়ালালামপুরের হাইকোর্টে ডেপুটি রেজিস্ট্রার, মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতির বিশেষ অফিসার, কুয়ালালামপুরের দায়রা আদালতের বিচারক, প্রধান বিচারপতির বিশেষ অফিসার এবং রেজিস্ট্রার হিসাবে মালয় হাইকোর্ট এবং মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রার।

জুডিশিয়াল অ্যান্ড লিগ্যাল সার্ভিসে তার চূড়ান্ত পোস্টিং ছিল ২০০৫ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রার হিসেবে। ২০০৬ সালের ২, কুয়ালালামপুরে মালয় হাইকোর্টের বিচার বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০০৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর, কুয়ালালামপুরে মালয় হাইকোর্টের বিচারক হিসাবে উন্নীত হন। শাহ আলম, সেলাঙ্গোরে মালয় হাইকোর্টের বিচারক হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতাও ছিল তার।

২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারি আপিল আদালতের বিচারক হিসাবে নিযুক্ত হন। ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর, ফেডারেল কোর্টের বিচারক হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০১৯ সালের ২ মে, মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিযুক্ত হন।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আসিয়ানের চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান হলেন বিন্তি তুয়ান মাত

আপডেট সময় ০৯:৩২:৫৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর ২০২২

আসিয়ানের চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতি টেংকু মায়মুন বিন্তি তুয়ান মাত। তিনি ২০২৪ সাল পর্যন্ত আসিয়ান চিফ জাস্টিস কাউন্সিলের (সিএসিজে) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবেন।

রোববার (৬ নভেম্বর) মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রারের কার্যালয় জানিয়েছে, ৪ ও ৫ নভেম্বর রাজধানী কুয়ালালামপুরে গ্র্যান্ড হায়াত হোটেলে দুই দিনব্যাপী দশম বৈঠকের পরে প্রধান বিচারপতিকে এই নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মালয়েশিয়ার বিচার বিভাগকে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ওয়ার্কিং গ্রুপের নেতৃত্ব দেওয়া হয়েছে। প্রথমটি হলো আসিয়ানের মধ্যে সিভিল প্রসেসগুলোর সুবিধা দেওয়ার ওপর সিএসিজে ওয়ার্কিং গ্রুপ, যার নেতৃত্বে মালায়ার সাবেক প্রধান বিচারপতি আজহার মোহাম্মদ।

দ্বিতীয়টি হলো কেস ম্যানেজমেন্ট এবং কোর্ট টেকনোলজি সম্পর্কিত সিএসিজে ওয়ার্কিং গ্রুপ, যার সভাপতিত্ব করেন সাবাহ এবং সারাওয়াকের প্রধান বিচারক আবং ইস্কান্দার আবং হাশিম।

বিচারপতি তুয়ান মাত ১৯৫৯ সালের ২ জুলাই কেলান্তানের কোটা ভারুতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মালয় বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন পড়েন এবং ১৯৮২ সালে অনার্সসহ স্নাতক করেন। ১৯৮২ সালে সাউদার্ন কেলান্টান ডেভেলপমেন্ট বোর্ডে (কেসেডার) আইনি কর্মকর্তা হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। পরে ১৯৮৪ সালে সেরেম্বান, নেগেরি সেম্বিলান মিউনিসিপ্যাল কাউন্সিলের আইনি অফিসার হিসাবে।

তার লেডিশিপ অ্যাটর্নি-জেনারেল চেম্বারের ড্রাফটিং ডিভিশনে ১৯৮৬ সালে সহকারী সংসদীয় ড্রাফ্টসম্যান হিসাবে বিচার বিভাগীয় ও আইনি পরিষেবায় যোগদান করেন। পরে, পোর্ট ডিকসন কোর্টে ম্যাজিস্ট্রেট, কুয়ালা তেরেঙ্গানু লিগ্যাল এইড ব্যুরোর একজন ফেডারেল কাউন্সেল, সেরেম্বানে হাইকোর্টের সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার, কুয়ালালামপুরের হাইকোর্টে ডেপুটি রেজিস্ট্রার, মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতির বিশেষ অফিসার, কুয়ালালামপুরের দায়রা আদালতের বিচারক, প্রধান বিচারপতির বিশেষ অফিসার এবং রেজিস্ট্রার হিসাবে মালয় হাইকোর্ট এবং মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রার।

জুডিশিয়াল অ্যান্ড লিগ্যাল সার্ভিসে তার চূড়ান্ত পোস্টিং ছিল ২০০৫ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টের চিফ রেজিস্ট্রার হিসেবে। ২০০৬ সালের ২, কুয়ালালামপুরে মালয় হাইকোর্টের বিচার বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০০৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর, কুয়ালালামপুরে মালয় হাইকোর্টের বিচারক হিসাবে উন্নীত হন। শাহ আলম, সেলাঙ্গোরে মালয় হাইকোর্টের বিচারক হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতাও ছিল তার।

২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারি আপিল আদালতের বিচারক হিসাবে নিযুক্ত হন। ২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর, ফেডারেল কোর্টের বিচারক হিসেবে নিযুক্ত হন। ২০১৯ সালের ২ মে, মালয়েশিয়ার প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিযুক্ত হন।