ঢাকা ০২:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রিয়ালকে টপকে পিকেকে বার্সার ‘বিদায়ী’ উপহার

অনেকটা আচমকাই ফুটবল থেকে বিদায়ের ঘোষণাটা দিয়েছিলেন জেরার্ড পিকে। জানিয়েছিলেন, শনিবার রাতেই ন্যু ক্যাম্পে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটা খেলবেন তিনি। আলমেরিয়ার বিপক্ষে তার বিদায়ী ম্যাচে বার্সেলোনা পেয়েছে ২-০ গোলের জয়। তাতে বার্সা টপকে গেছে রিয়াল মাদ্রিদকে, চলে এসেছে লা লিগার শীর্ষে, সঙ্গে পিকেকেও বিদায়টা ভালোভাবেই জানিয়ে দিয়েছে কাতালান দলটি। 

ন্যু ক্যাম্পে পিকের বিদায়ী ম্যাচে ৯২ হাজার ৬০৫ জন দর্শক এসে হাজির হয়েছিলেন বার্সেলোনার ঘরের মাঠে। অধিনায়ক সার্জিও বুসকেটস অধিনায়কের বাহুবন্ধনীটা তুলে দেন পিকের হাতে। শেষ ১৪ বছর ধরে যে ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করেছেন, ঘরের মাঠে বিদায়ী ম্যাচের দিনে তিনি সেই ক্লাবের নেতৃত্বের দায়িত্বটা পান।

ম্যাচের ৪৮ মিনিটে অবশেষে গোলের দেখা পায় বার্সেলোনা। উসমান দেম্বেলের দারুণ এক গোলে দলটি এগিয়ে যায় ম্যাচে। ৬২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং। বদলি খেলোয়াড় আনসু ফাতির শট ঠেকালেও ডি ইয়ংয়ের ফিরতি চেষ্টাটা ঠেকাতে পারেননি তিনি। ফলে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় দলটি।

এরপর আরও গোলের সুযোগ পেলেও গোল আর পায়নি লা ব্লাউগ্রানারা। তবে ম্যাচের সবচেয়ে আলোচিত মুহূর্তের দেখা মেলে ৮৩ মিনিটে। কোচ জাভি যখন জেরার্ড পিকেকে তুলে নেন মাঠ থেকে। কান্না চোখে নিয়ে সতীর্থদের জড়িয়ে ধরে বিদায় জানান তিনি, মাঠ ছাড়ার সময় দর্শকদের দাঁড়ানো অভিবাদনও পান তিনি।

ন্যু ক্যাম্পকে বিদায় জানালেও পিকের শেষ ম্যাচ এটাই নয়। আগামী মঙ্গলবার কাতার বিশ্বকাপের আগে শেষ ম্যাচে বার্সেলোনার। ওসাসুনার মাঠে সেই ম্যাচটি খেলেই ফুটবলকে বিদায় জানান পিকে।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রিয়ালকে টপকে পিকেকে বার্সার ‘বিদায়ী’ উপহার

আপডেট সময় ১২:০৬:৫৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ৬ নভেম্বর ২০২২

অনেকটা আচমকাই ফুটবল থেকে বিদায়ের ঘোষণাটা দিয়েছিলেন জেরার্ড পিকে। জানিয়েছিলেন, শনিবার রাতেই ন্যু ক্যাম্পে ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচটা খেলবেন তিনি। আলমেরিয়ার বিপক্ষে তার বিদায়ী ম্যাচে বার্সেলোনা পেয়েছে ২-০ গোলের জয়। তাতে বার্সা টপকে গেছে রিয়াল মাদ্রিদকে, চলে এসেছে লা লিগার শীর্ষে, সঙ্গে পিকেকেও বিদায়টা ভালোভাবেই জানিয়ে দিয়েছে কাতালান দলটি। 

ন্যু ক্যাম্পে পিকের বিদায়ী ম্যাচে ৯২ হাজার ৬০৫ জন দর্শক এসে হাজির হয়েছিলেন বার্সেলোনার ঘরের মাঠে। অধিনায়ক সার্জিও বুসকেটস অধিনায়কের বাহুবন্ধনীটা তুলে দেন পিকের হাতে। শেষ ১৪ বছর ধরে যে ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করেছেন, ঘরের মাঠে বিদায়ী ম্যাচের দিনে তিনি সেই ক্লাবের নেতৃত্বের দায়িত্বটা পান।

ম্যাচের ৪৮ মিনিটে অবশেষে গোলের দেখা পায় বার্সেলোনা। উসমান দেম্বেলের দারুণ এক গোলে দলটি এগিয়ে যায় ম্যাচে। ৬২তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং। বদলি খেলোয়াড় আনসু ফাতির শট ঠেকালেও ডি ইয়ংয়ের ফিরতি চেষ্টাটা ঠেকাতে পারেননি তিনি। ফলে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় দলটি।

এরপর আরও গোলের সুযোগ পেলেও গোল আর পায়নি লা ব্লাউগ্রানারা। তবে ম্যাচের সবচেয়ে আলোচিত মুহূর্তের দেখা মেলে ৮৩ মিনিটে। কোচ জাভি যখন জেরার্ড পিকেকে তুলে নেন মাঠ থেকে। কান্না চোখে নিয়ে সতীর্থদের জড়িয়ে ধরে বিদায় জানান তিনি, মাঠ ছাড়ার সময় দর্শকদের দাঁড়ানো অভিবাদনও পান তিনি।

ন্যু ক্যাম্পকে বিদায় জানালেও পিকের শেষ ম্যাচ এটাই নয়। আগামী মঙ্গলবার কাতার বিশ্বকাপের আগে শেষ ম্যাচে বার্সেলোনার। ওসাসুনার মাঠে সেই ম্যাচটি খেলেই ফুটবলকে বিদায় জানান পিকে।