ঢাকা ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কুমিল্লার মুরাদনগরে গরিব দুঃস্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন স্থানীয় এমপি আসছে হালিম মজুমদারের পরিচালনায় রোমহর্ষক গল্পের নাটক ‘বিস্ময় বালিকা’ জমকালো আয়োজনে শার্শার বাগ আঁচড়ায় এশিয়ান টিভির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন কুমিল্লা নগরীর ডাস্টবিনে নবজাতকের লাশ ১৯১ অনলাইন পোর্টাল বন্ধে তথ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠি ঝিকরগাছায় থানা পুলিশের তৎপরতায় বিদেশি মদ সহ এক মাদক চোরাকারবারি আটক সময়ও কথা সাপ্তাহিক পত্রিকার উদ্বোধন কুমিল্লায় হোটেল তদার‌কি অ‌ভিযা‌নে দুই প্রতিষ্ঠান‌কে ১লাখ ২০ হাজার টাকা জ‌রিমানা কুমিল্লা জেলা গোয়েন্দা শাখা বিশেষ অভিযানে অস্ত্র ও গুলিসহ আটক ১ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেলেন খাদিজা আক্তার পূর্ণী

হঠাৎ বাড়তি পেঁয়াজের দাম

রাজধানীর মালিবাগ বাজারে সপ্তাহিক ছুটির দিনে সপ্তাহের বাজার করতে এসেছেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী পারভেজ আহমেদ। সব কিছুই বাড়তি দামে কেনার পর পেঁয়াজ কিনতে এসেও তিনি হতাশ হয়েছেন। কারণ হঠাৎ করেই পেঁয়াজের দামও বেড়ে গেছে।

ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের হতাশা প্রকাশ করে পারভেজ আহমেদ বলেন, গত সপ্তাহেই পেঁয়াজ কিনেছি ৫০ টাকায়। আজ সেই পেঁয়াজ কিনতে হলো ৬০ টাকায়। এক সপ্তাহে ১০ টাকা বেড়ে গেল পেঁয়াজের দাম? এরও আগে ৪০/৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনেছি। এভাবে প্রতি সপ্তাহে যদি পেঁয়াজের দাম বাড়ে তাহলে সাধারণ মানুষ কিভাবে কিনবে?

খুচরা বাজারে হঠাৎ কেন পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেল এ বিষয়ে গুলশান সংলগ্ন কাঁচা বাজারে খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা লিয়াকত আলী বলেন, পেঁয়াজের দাম হঠাৎ বেড়ে যাওয়ার কারণ হলো আগের পেঁয়াজ শেষের দিকে। এখন নতুন পেঁয়াজ উঠতে আরও কমপক্ষে দুই মাস সময় লাগবে। যে কারণে পাইকারি বাজারেও আমাদের কেনা দাম বেশি পড়ছে।  নতুন পেঁয়াজ ওঠার আগ পর্যন্ত দাম বাড়তিই থাকবে বলে মনে হচ্ছে।

রাজধানীর মধ্যবাড্ডা এলাকায় ভ্যানে করে পেঁয়াজ বিক্রি করছিলেন উৎপল দাস। তিনি বলেন, কয়েকদিন আগেও ৩৮/৪০ টাকায় পাইকারি বাজার থেকে পেঁয়াজ কিনে ৪৫ টাকায় বিক্রি করতাম। কিন্তু কয়েকদিন ধরে সেই দাম বাড়তি যাচ্ছে। এখন ৫০/৫২ টাকা পাইকারিই কেনা পড়ছে। এরপর সেই পেঁয়াজ বাছাই করে বড় ছোট ভালো আলাদা করে ৫৫/৬০ টাকায় বিক্রি করছি।  এখন কিছু দিন পেঁয়াজের দাম বাড়তিই যাবে, এরপর নতুন পেঁয়াজ উঠলে আবার দাম কমতে শুরু করবে।

শান্তিনগর বাজার থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনতে হলো উল্লেখ করে ফিরোজ আহমেদ নামের একজন বেসরকারি চাকরিজীবী বলেন, বাজারে এমন কোনো জিনিস নেই যে জিনিসের বাড়তি দাম যাচ্ছে না। আমাদের মতো নিম্ন আয়ের মানুষ যে কিভাবে এই বাজারে টিকে আছে সে কথা শুধু আমরাই জানি। মাছ, মাংস, ডিম সব কিছুরই দাম বাড়তি। বাজারে ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। এর মধ্যে হঠাৎ দাম বেড়েছে পেঁয়াজেরও। ৫০ টাকায় যে পেঁয়াজ কিনেছি সেটা আজ কিনতে হলো এক কেজি ৬০ টাকা দিয়ে। আমরা সাধারণ মানুষ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে আর টিকে থাকতে পারছি না।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কুমিল্লার মুরাদনগরে গরিব দুঃস্থদের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন স্থানীয় এমপি

হঠাৎ বাড়তি পেঁয়াজের দাম

আপডেট সময় ০৩:৫৭:২৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০২২

রাজধানীর মালিবাগ বাজারে সপ্তাহিক ছুটির দিনে সপ্তাহের বাজার করতে এসেছেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী পারভেজ আহমেদ। সব কিছুই বাড়তি দামে কেনার পর পেঁয়াজ কিনতে এসেও তিনি হতাশ হয়েছেন। কারণ হঠাৎ করেই পেঁয়াজের দামও বেড়ে গেছে।

ক্ষুব্ধ হয়ে নিজের হতাশা প্রকাশ করে পারভেজ আহমেদ বলেন, গত সপ্তাহেই পেঁয়াজ কিনেছি ৫০ টাকায়। আজ সেই পেঁয়াজ কিনতে হলো ৬০ টাকায়। এক সপ্তাহে ১০ টাকা বেড়ে গেল পেঁয়াজের দাম? এরও আগে ৪০/৪৫ টাকায় পেঁয়াজ কিনেছি। এভাবে প্রতি সপ্তাহে যদি পেঁয়াজের দাম বাড়ে তাহলে সাধারণ মানুষ কিভাবে কিনবে?

খুচরা বাজারে হঠাৎ কেন পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেল এ বিষয়ে গুলশান সংলগ্ন কাঁচা বাজারে খুচরা পেঁয়াজ বিক্রেতা লিয়াকত আলী বলেন, পেঁয়াজের দাম হঠাৎ বেড়ে যাওয়ার কারণ হলো আগের পেঁয়াজ শেষের দিকে। এখন নতুন পেঁয়াজ উঠতে আরও কমপক্ষে দুই মাস সময় লাগবে। যে কারণে পাইকারি বাজারেও আমাদের কেনা দাম বেশি পড়ছে।  নতুন পেঁয়াজ ওঠার আগ পর্যন্ত দাম বাড়তিই থাকবে বলে মনে হচ্ছে।

রাজধানীর মধ্যবাড্ডা এলাকায় ভ্যানে করে পেঁয়াজ বিক্রি করছিলেন উৎপল দাস। তিনি বলেন, কয়েকদিন আগেও ৩৮/৪০ টাকায় পাইকারি বাজার থেকে পেঁয়াজ কিনে ৪৫ টাকায় বিক্রি করতাম। কিন্তু কয়েকদিন ধরে সেই দাম বাড়তি যাচ্ছে। এখন ৫০/৫২ টাকা পাইকারিই কেনা পড়ছে। এরপর সেই পেঁয়াজ বাছাই করে বড় ছোট ভালো আলাদা করে ৫৫/৬০ টাকায় বিক্রি করছি।  এখন কিছু দিন পেঁয়াজের দাম বাড়তিই যাবে, এরপর নতুন পেঁয়াজ উঠলে আবার দাম কমতে শুরু করবে।

শান্তিনগর বাজার থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনতে হলো উল্লেখ করে ফিরোজ আহমেদ নামের একজন বেসরকারি চাকরিজীবী বলেন, বাজারে এমন কোনো জিনিস নেই যে জিনিসের বাড়তি দাম যাচ্ছে না। আমাদের মতো নিম্ন আয়ের মানুষ যে কিভাবে এই বাজারে টিকে আছে সে কথা শুধু আমরাই জানি। মাছ, মাংস, ডিম সব কিছুরই দাম বাড়তি। বাজারে ৫০ টাকার নিচে কোনো সবজি নেই। এর মধ্যে হঠাৎ দাম বেড়েছে পেঁয়াজেরও। ৫০ টাকায় যে পেঁয়াজ কিনেছি সেটা আজ কিনতে হলো এক কেজি ৬০ টাকা দিয়ে। আমরা সাধারণ মানুষ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে আর টিকে থাকতে পারছি না।