ঢাকা ০৯:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কটিয়াদীতে নাইট মিনি ফুটবল প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত আজমিরীগঞ্জে জাকজমকভাবে ৫ শতাধিক মন্ডপে বিদ্যাদেবী সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত রাজধানীতে পৃথক দুর্ঘটনায় দুই শিশুসহ নিহত-৩ লোহাগাড়া থানা পুলিশের অভিযানে ৩ টি বিপন্ন প্রাণী সহ আটক ৪ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে প্রধানমন্ত্রী প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষার ডিজিটাল প্লাটফর্ম তৈরী করেছেন প্রাচীন নিদর্শন ৩ গম্বুজ দেওগাঁ জামে মসজিদ কিশোরগঞ্জে ফরহাদ গ্যাংয়ের ৩ সদস্য আটক কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত চট্টগ্রাম মতি টাওয়ার মতি কমপ্লেক্স ট্রাভেলস এজেন্সি এসোসিয়েশনের মাসিক সভা-২০২৩ হবিগঞ্জের জীবন সংগ্রামী তরুণ নেজামুল হক

‘সবার ঢাকা’ অ্যাপে নাগরিক সমস্যা চিহ্নিত ও সমাধানে নতুন উদ্যোগ

নাগরিক নানান সমস্যা সমাধানে গত বছরের জানুয়ারি থেকে চালু হয়েছিল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ‌‘সবার ঢাকা’ অ্যাপস। অ্যাপ দিয়ে সেবা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত এক লাখ ৯২ হাজার ৬৮৯টি অভিযোগ জানানো হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১ লাখ ৬১ হাজার ৮৭৪টি সমাধান দেওয়া হয়েছে এবং ৩০ হাজার ৮০৫টি সমাধান প্রক্রিয়াধীন।

সবার ঢাকা অ্যাপকে বলা হচ্ছে ডিএনসিসি সিটিজেন অ্যাঙ্গেজমেন্ট প্ল্যাটফর্ম। এখানে নাগরিকরা যেমন তাদের অভিযোগ জানাচ্ছেন, তেমনি সমস্যা চিহ্নিত করে অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির মশক নিধন, পরিচ্ছন্নতা কর্মীদেরও অভিযোগ দাখিল ও তা সমাধানে কাজ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির মশক নিধন সুপারভাইজার, পরিচ্ছন্নতা সুপারভাইজাররা বিভিন্ন সমস্যা খুঁজে বের করে তা সমাধানে কাজ করবেন। সমস্যা খুঁজে বের করে প্রতিদিন তাদের নির্দিষ্ট সংখ্যক অভিযোগ অ্যাপে দাখিল করতে হবে, পাশাপাশি সমাধানও দিতে হবে।

মূলত কর্মীরা যেন কাজে ফাঁকি দিতে না পারেন ও সমস্যাগুলো বাধ্যতামূলক সমাধানের উদ্যোগ নেয়- এ কারণে তাদেরও যুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে কর্মীদের সবার ঢাকা অ্যাপ বিষয়ক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে ডিএনসিসি। বুধবার থেকে শুরু হওয়া এই প্রশিক্ষণে ডিএনসিসির ৩০০ কর্মী অংশ নিয়েছেন।

ডিএনসিসি সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ বিষয়ে জানিয়েছেন, ১৯, ২০ ও ২২ অক্টোবর দুই দিনে তিনটি ব্যাচ এবং ৩য় দিনে ৪ টি ব্যাচে মোট ৩০০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা হতে বিকেল ৩টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চলবে।

সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবার ঢাকা অ্যাপে তাদের চিহ্নিত হওয়া সমস্যাগুলো বাধ্যতামূলক জানাতে হবে। এতে করে সমস্যা চিহ্নিতকরণ এবং এর সমাধান দেওয়া ডিএনসিসির সহজ হবে। নগরবাসীর পাশাপাশি ডিএনসিসি কর্মীদের অভিযোগগুলো যুক্ত হলে শহরের নানান সমস্যা কমে আসবে ও কাজের গতি সৃষ্টি হবে।

২০২১ সালের ১০ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হয়ে সিটিজেন অ্যাপ ‘সবার ঢাকা’। অ্যাপসের মাধ্যমে ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকার নাগরিকরা করপোরেশন নির্ধারিত সেবাগুলো খুব সহজেই পেতে পারেন। অ্যাপের মাধ্যমে নাগরিকরা তাদের এলাকার রাস্তা, মশা, সড়ক, আবর্জনা, জলাবদ্ধতা, পাবলিক টয়লেট, নর্দমা ও অবৈধ স্থাপনা- এ আটটি বিষয়ে সমস্যার কথা সরাসরি সিটি করপোরেশন বরাবর তুলে ধরতে পারেন। এছাড়া সুস্থ, সচল ও আধুনিক নগরী গড়ে তুলতে নাগরিকরা তাদের পরামর্শ দিতে পারেন। অ্যাপ ব্যবহারকারীরা সমস্যার স্থান থেকে মোবাইলে ছবি তুলে জমা দেওয়ার সাথে সাথে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপটি তার লোকেশন অনুযায়ী নির্ধারিত এলাকা তথা ডিএনসিসির ওয়ার্ড ও অঞ্চল নির্ধারণ করে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট সমস্যাটি পৌঁছে দেয়।

যেভাবে কাজ করে সবার ঢাকা অ্যাপ

অ্যাপের ফিচারগুলো বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, ‘সবার ঢাকা’ অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির এলাকায় বসবাসরত নাগরিকরা সড়ক কিংবা ফুটপাতের ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা, রাতে সড়ক বাতি না জ্বললে বা ফুটপাতে পড়ে থাকা বর্জ্যের স্তূপসহ যেকোনো ধরনের অভিযোগ ছবি তুলে জানাতে পারবেন। গুগল প্লে-স্টোর থেকে বিনামূল্যে অ্যাপটি ডাউনলোড ও ইনস্টল করে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ব্যবহার করা যাবে।

অভিযোগের বিষয়ের ছবি মোবাইলের মাধ্যমে পাঠিয়ে দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেটি কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে যাবে। সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয়সহ বিভিন্ন এলাকায় (জোন) দায়িত্বপ্রাপ্তরা প্রতিটি অভিযোগ ও মতামত দেখতে পারবেন। অভিযোগের ধরন বিশ্লেষণ করে সমাধানের যে উদ্যোগ নেবে ডিএনসিসি, সেটিও জানা যাবে অ্যাপের মাধ্যমেই। সমস্যার সমাধান হলে অভিযোগকারীও স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিষয়টি জানতে পারবেন।

সবার ঢাকা অ্যাপে একটি সমস্যা সমাধানে ২৪ থেকে ৭২ ঘণ্টা সময় লাগে। নির্ধারিত সময়ে সমস্যার সমাধান না হলে, সমস্যা জমাদানের ১০ দিনের মধ্যে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেয়রের নিকট পৌঁছে যায়। তখন জমা হওয়া সমস্যা সমাধানে মেয়র নিজে সরাসরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কটিয়াদীতে নাইট মিনি ফুটবল প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত

‘সবার ঢাকা’ অ্যাপে নাগরিক সমস্যা চিহ্নিত ও সমাধানে নতুন উদ্যোগ

আপডেট সময় ০১:২০:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২

নাগরিক নানান সমস্যা সমাধানে গত বছরের জানুয়ারি থেকে চালু হয়েছিল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ‌‘সবার ঢাকা’ অ্যাপস। অ্যাপ দিয়ে সেবা শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত এক লাখ ৯২ হাজার ৬৮৯টি অভিযোগ জানানো হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে ১ লাখ ৬১ হাজার ৮৭৪টি সমাধান দেওয়া হয়েছে এবং ৩০ হাজার ৮০৫টি সমাধান প্রক্রিয়াধীন।

সবার ঢাকা অ্যাপকে বলা হচ্ছে ডিএনসিসি সিটিজেন অ্যাঙ্গেজমেন্ট প্ল্যাটফর্ম। এখানে নাগরিকরা যেমন তাদের অভিযোগ জানাচ্ছেন, তেমনি সমস্যা চিহ্নিত করে অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির মশক নিধন, পরিচ্ছন্নতা কর্মীদেরও অভিযোগ দাখিল ও তা সমাধানে কাজ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির মশক নিধন সুপারভাইজার, পরিচ্ছন্নতা সুপারভাইজাররা বিভিন্ন সমস্যা খুঁজে বের করে তা সমাধানে কাজ করবেন। সমস্যা খুঁজে বের করে প্রতিদিন তাদের নির্দিষ্ট সংখ্যক অভিযোগ অ্যাপে দাখিল করতে হবে, পাশাপাশি সমাধানও দিতে হবে।

মূলত কর্মীরা যেন কাজে ফাঁকি দিতে না পারেন ও সমস্যাগুলো বাধ্যতামূলক সমাধানের উদ্যোগ নেয়- এ কারণে তাদেরও যুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে কর্মীদের সবার ঢাকা অ্যাপ বিষয়ক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে ডিএনসিসি। বুধবার থেকে শুরু হওয়া এই প্রশিক্ষণে ডিএনসিসির ৩০০ কর্মী অংশ নিয়েছেন।

ডিএনসিসি সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ বিষয়ে জানিয়েছেন, ১৯, ২০ ও ২২ অক্টোবর দুই দিনে তিনটি ব্যাচ এবং ৩য় দিনে ৪ টি ব্যাচে মোট ৩০০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এই প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা হতে বিকেল ৩টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চলবে।

সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবার ঢাকা অ্যাপে তাদের চিহ্নিত হওয়া সমস্যাগুলো বাধ্যতামূলক জানাতে হবে। এতে করে সমস্যা চিহ্নিতকরণ এবং এর সমাধান দেওয়া ডিএনসিসির সহজ হবে। নগরবাসীর পাশাপাশি ডিএনসিসি কর্মীদের অভিযোগগুলো যুক্ত হলে শহরের নানান সমস্যা কমে আসবে ও কাজের গতি সৃষ্টি হবে।

২০২১ সালের ১০ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হয়ে সিটিজেন অ্যাপ ‘সবার ঢাকা’। অ্যাপসের মাধ্যমে ডিএনসিসির আওতাধীন এলাকার নাগরিকরা করপোরেশন নির্ধারিত সেবাগুলো খুব সহজেই পেতে পারেন। অ্যাপের মাধ্যমে নাগরিকরা তাদের এলাকার রাস্তা, মশা, সড়ক, আবর্জনা, জলাবদ্ধতা, পাবলিক টয়লেট, নর্দমা ও অবৈধ স্থাপনা- এ আটটি বিষয়ে সমস্যার কথা সরাসরি সিটি করপোরেশন বরাবর তুলে ধরতে পারেন। এছাড়া সুস্থ, সচল ও আধুনিক নগরী গড়ে তুলতে নাগরিকরা তাদের পরামর্শ দিতে পারেন। অ্যাপ ব্যবহারকারীরা সমস্যার স্থান থেকে মোবাইলে ছবি তুলে জমা দেওয়ার সাথে সাথে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অ্যাপটি তার লোকেশন অনুযায়ী নির্ধারিত এলাকা তথা ডিএনসিসির ওয়ার্ড ও অঞ্চল নির্ধারণ করে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট সমস্যাটি পৌঁছে দেয়।

যেভাবে কাজ করে সবার ঢাকা অ্যাপ

অ্যাপের ফিচারগুলো বিশ্লেষণ করে জানা গেছে, ‘সবার ঢাকা’ অ্যাপের মাধ্যমে ডিএনসিসির এলাকায় বসবাসরত নাগরিকরা সড়ক কিংবা ফুটপাতের ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা, রাতে সড়ক বাতি না জ্বললে বা ফুটপাতে পড়ে থাকা বর্জ্যের স্তূপসহ যেকোনো ধরনের অভিযোগ ছবি তুলে জানাতে পারবেন। গুগল প্লে-স্টোর থেকে বিনামূল্যে অ্যাপটি ডাউনলোড ও ইনস্টল করে রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ব্যবহার করা যাবে।

অভিযোগের বিষয়ের ছবি মোবাইলের মাধ্যমে পাঠিয়ে দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেটি কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে যাবে। সিটি করপোরেশনের প্রধান কার্যালয়সহ বিভিন্ন এলাকায় (জোন) দায়িত্বপ্রাপ্তরা প্রতিটি অভিযোগ ও মতামত দেখতে পারবেন। অভিযোগের ধরন বিশ্লেষণ করে সমাধানের যে উদ্যোগ নেবে ডিএনসিসি, সেটিও জানা যাবে অ্যাপের মাধ্যমেই। সমস্যার সমাধান হলে অভিযোগকারীও স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিষয়টি জানতে পারবেন।

সবার ঢাকা অ্যাপে একটি সমস্যা সমাধানে ২৪ থেকে ৭২ ঘণ্টা সময় লাগে। নির্ধারিত সময়ে সমস্যার সমাধান না হলে, সমস্যা জমাদানের ১০ দিনের মধ্যে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেয়রের নিকট পৌঁছে যায়। তখন জমা হওয়া সমস্যা সমাধানে মেয়র নিজে সরাসরি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।