ঢাকা ১০:৩৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

বরগুনায় টিআর বরাদ্দের অর্থ ছাড় না দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

বরগুনা সদর উপজেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসার অনুকুলে ২০২১-২২ অর্থ বছরে টিআর বরাদ্দকৃত অর্থ শংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ছাড় না দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী।

বুধবার সকাল ১১ টায় উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নের রায়ভোগ চৌমূহনী বাজারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। বিশিষ্ট সমাজসেবী আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রায়ভোগ ফাজিল হাওলাদার বাড়ী নুরানি মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মোঃ রিপন হাওলাদার, পূর্ব রায়ভোগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবু জাফরসহ এলাকার গন্যমান্য বক্তিবর্গ।

এ সময় বক্তারা বলেন, আমরা টিআর বরাদ্দের আশায় ধার-কর্য করে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন সংস্কারমূলক কাজ নিজস্ব অর্থায়নে করেছি। এ ব্যাপারে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিষ্ঠানের অনূকুলে বরাদ্দকৃত অর্থ ছাড় দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা অনুরোধ করছি।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আ.লীগ নয়, বিএনপির প্রধান শত্রু জনগণ : শেখ পরশ

বরগুনায় টিআর বরাদ্দের অর্থ ছাড় না দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন

আপডেট সময় ০৪:৩৮:৫০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

বরগুনা সদর উপজেলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসার অনুকুলে ২০২১-২২ অর্থ বছরে টিআর বরাদ্দকৃত অর্থ শংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ছাড় না দেয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী।

বুধবার সকাল ১১ টায় উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নের রায়ভোগ চৌমূহনী বাজারে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। বিশিষ্ট সমাজসেবী আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রায়ভোগ ফাজিল হাওলাদার বাড়ী নুরানি মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মোঃ রিপন হাওলাদার, পূর্ব রায়ভোগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আবু জাফরসহ এলাকার গন্যমান্য বক্তিবর্গ।

এ সময় বক্তারা বলেন, আমরা টিআর বরাদ্দের আশায় ধার-কর্য করে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন সংস্কারমূলক কাজ নিজস্ব অর্থায়নে করেছি। এ ব্যাপারে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে প্রতিষ্ঠানের অনূকুলে বরাদ্দকৃত অর্থ ছাড় দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা অনুরোধ করছি।