ঢাকা ০৯:০৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
কটিয়াদীতে নাইট মিনি ফুটবল প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত আজমিরীগঞ্জে জাকজমকভাবে ৫ শতাধিক মন্ডপে বিদ্যাদেবী সরস্বতী পুজা অনুষ্ঠিত রাজধানীতে পৃথক দুর্ঘটনায় দুই শিশুসহ নিহত-৩ লোহাগাড়া থানা পুলিশের অভিযানে ৩ টি বিপন্ন প্রাণী সহ আটক ৪ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণে প্রধানমন্ত্রী প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষার ডিজিটাল প্লাটফর্ম তৈরী করেছেন প্রাচীন নিদর্শন ৩ গম্বুজ দেওগাঁ জামে মসজিদ কিশোরগঞ্জে ফরহাদ গ্যাংয়ের ৩ সদস্য আটক কুমিল্লা চৌদ্দগ্রামে ট্রাক চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত চট্টগ্রাম মতি টাওয়ার মতি কমপ্লেক্স ট্রাভেলস এজেন্সি এসোসিয়েশনের মাসিক সভা-২০২৩ হবিগঞ্জের জীবন সংগ্রামী তরুণ নেজামুল হক

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে ধান রোপণ

  • রিয়াজ ফরাজী, ভোলা
  • আপডেট সময় ১০:০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ৫৮২ বার পড়া হয়েছে

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ২নং ওয়ার্ডে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিরোধপূর্ণ জমিতে প্রতিপক্ষ ইউসুফ গংদের বিরুদ্বে জোরপূর্বক ধান রোপণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ০৭ সেপ্টেম্বর ( বুধবার )  প্রত্যক্ষদর্শীর অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিন গেলে ভুক্তভোগী আকবর লস্কর দৈনিক আমাদের মাতৃভূমি কে জানান, উক্ত জমি দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি ভোগ দখল করে আসছেন কিন্তু বেশ কিছু দিন যাবৎ ইউসুফ গংরা তাহার ভোগ দখলকৃত জমিতে চাষাবাদ করতে বাধা প্রধান করে। এ বিষয় স্থানীয় এক সাবেক চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে একাধিক বার সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় হয়। কিন্তু তাতেও সুরাহা না হলে বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। পরবর্তীতে আদালত নোটিশ জারি করে ইউসুফ গং ও আকবর লস্কর উভয়েরই বিরুদ্বে কিন্তু ইউসুফ গংরা নোটিশ এর তোয়াক্কা না করে উপরোল্লিখিত তারিখে জোরপূর্বক ধান রোপণ করিতে থাকে পরে পুলিশ এসে তাদের বাধা প্রধান করেন।

এ বিষয় অভিযুক্ত ইউসুফ গং কে জিজ্ঞাসা করিলে তিনি দৈনিক আমাদের মাতৃভূমি কে জানান, এই জমি তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি আকবর লস্করসহ তার লোকজনেরা দীর্ঘদিন জোরপূর্বক ভোগ দখল করে আসিতেছে এবং বিরোধপূর্ণ এই জমি যে আকবর লস্করের বলে তিনি দাবি করেছেন এ বিষয়ে কোনো উপযুক্ত কাগজ প্রমাণাদি তারা দেখাতে পারেন নাই। আদালতের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ইউসুফ গং-এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা, তবে আমরাও আকবর লস্কর এর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছি এবং মামলাটি চলমান রয়েছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত প্রশাসনের কাছে জানতে চাইলে বোরহানউদ্দিন থানার এসআই মোঃ মোস্তফা দৈনিক আমাদের মাতৃভূমিকে বলেন, বিরোধপূর্ণ জমিতে উভয় পক্ষের কেউ ওই জমিতে ধান রোপণ করতে পারবেনা। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ধান রোপন করার খবর পেয়ে আমরা এসে তাদেরকে ডেকে নিষেধ করেছি। তাদের বলেছি যেহেতু বিষয়টি আদালতের বিচারাধীন সেহেতু নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত দুই পক্ষের কেউ এ জমিতে চাষাবাদ বা অন্য কিছু করা যাবে না।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কটিয়াদীতে নাইট মিনি ফুটবল প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত

আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমিতে ধান রোপণ

আপডেট সময় ১০:০৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ২নং ওয়ার্ডে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিরোধপূর্ণ জমিতে প্রতিপক্ষ ইউসুফ গংদের বিরুদ্বে জোরপূর্বক ধান রোপণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত ০৭ সেপ্টেম্বর ( বুধবার )  প্রত্যক্ষদর্শীর অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিন গেলে ভুক্তভোগী আকবর লস্কর দৈনিক আমাদের মাতৃভূমি কে জানান, উক্ত জমি দীর্ঘদিন যাবৎ তিনি ভোগ দখল করে আসছেন কিন্তু বেশ কিছু দিন যাবৎ ইউসুফ গংরা তাহার ভোগ দখলকৃত জমিতে চাষাবাদ করতে বাধা প্রধান করে। এ বিষয় স্থানীয় এক সাবেক চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে একাধিক বার সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় হয়। কিন্তু তাতেও সুরাহা না হলে বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। পরবর্তীতে আদালত নোটিশ জারি করে ইউসুফ গং ও আকবর লস্কর উভয়েরই বিরুদ্বে কিন্তু ইউসুফ গংরা নোটিশ এর তোয়াক্কা না করে উপরোল্লিখিত তারিখে জোরপূর্বক ধান রোপণ করিতে থাকে পরে পুলিশ এসে তাদের বাধা প্রধান করেন।

এ বিষয় অভিযুক্ত ইউসুফ গং কে জিজ্ঞাসা করিলে তিনি দৈনিক আমাদের মাতৃভূমি কে জানান, এই জমি তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি আকবর লস্করসহ তার লোকজনেরা দীর্ঘদিন জোরপূর্বক ভোগ দখল করে আসিতেছে এবং বিরোধপূর্ণ এই জমি যে আকবর লস্করের বলে তিনি দাবি করেছেন এ বিষয়ে কোনো উপযুক্ত কাগজ প্রমাণাদি তারা দেখাতে পারেন নাই। আদালতের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ইউসুফ গং-এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু জানিনা, তবে আমরাও আকবর লস্কর এর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছি এবং মামলাটি চলমান রয়েছে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত প্রশাসনের কাছে জানতে চাইলে বোরহানউদ্দিন থানার এসআই মোঃ মোস্তফা দৈনিক আমাদের মাতৃভূমিকে বলেন, বিরোধপূর্ণ জমিতে উভয় পক্ষের কেউ ওই জমিতে ধান রোপণ করতে পারবেনা। আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ধান রোপন করার খবর পেয়ে আমরা এসে তাদেরকে ডেকে নিষেধ করেছি। তাদের বলেছি যেহেতু বিষয়টি আদালতের বিচারাধীন সেহেতু নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত দুই পক্ষের কেউ এ জমিতে চাষাবাদ বা অন্য কিছু করা যাবে না।