ঢাকা ১১:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কারণ ছাড়াই বাড়ছে ইউনিক হোটেলের শেয়ার

কোনো কারণ ছাড়াই অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের শেয়ার। ২০১২ সালে তালিকাভুক্ত ভ্রমণ খাতের কোম্পানিটির শেয়ারের দাম সাত দিনের বেড়েছে ১২ টাকা ১০ পয়সা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, ২৫ আগস্ট ইউনিক হোটেলের শেয়ারের মূল্য ছিল ৫৬ টাাকা ৫০ পয়সা। সেখান থেকে ১২ টাকা ১০ পয়সা বেড়ে ৪ সেপ্টেম্বর দাঁড়িয়েছে ৬৯ টাকা ৬০ পয়সা।

বিনিয়োগকারীরা বলছেন, ইউনিক হোটেলের সামনে জুলাই থেকে ৩০ জুন সমাপ্ত বছরের লভ্যাংশ ঘোষণা হবে। বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা বিগত দুই বছরের তুলনায় এ বছর আরও ভালো লভ্যাংশ দেবে। এ কারণে শেয়ারটিতে বিনিয়োগ করছেন তারা।

এদিকে হঠাৎ কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বৃদ্ধির পেছনে কোনো সংবেদনশীল তথ্য আছে কিনা খতিযে দেখবে ডিএসই। এ বিষয়ে ডিএসইর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও মুখাপত্র বলেন, কোম্পনির শেয়ারের দাম বৃদ্ধির কোনো কারণ আছে কিনা দেখা হবে। তিনি বলেন, মূল মার্কেট ছাড়াও স্পট মার্কেটে শেয়ারটির অনেক লেনদেন হচ্ছে। কে বা কারা করছে সে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

কোম্পানিটি ২০২১ সালে শেয়াহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। তার আগের বছরও ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ঋণে থাকা কোম্পানিটির রিজার্ভ সারপ্লাস দেখানো হয়েছে ১ হাজার ৬৭৮ কোটি টাকা।

বর্তমানে কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে রয়েছে কোম্পানির ৪৬ শতাংশ শেয়ার, ২৭ শতাংশ রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে কোম্পানির ২৫ শতাংশ শেয়ার।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কারণ ছাড়াই বাড়ছে ইউনিক হোটেলের শেয়ার

আপডেট সময় ০৫:৩৯:৩১ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

কোনো কারণ ছাড়াই অস্বাভাবিক হারে বাড়ছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ইউনিক হোটেল অ্যান্ড রিসোর্টস লিমিটেডের শেয়ার। ২০১২ সালে তালিকাভুক্ত ভ্রমণ খাতের কোম্পানিটির শেয়ারের দাম সাত দিনের বেড়েছে ১২ টাকা ১০ পয়সা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

ডিএসইর তথ্য মতে, ২৫ আগস্ট ইউনিক হোটেলের শেয়ারের মূল্য ছিল ৫৬ টাাকা ৫০ পয়সা। সেখান থেকে ১২ টাকা ১০ পয়সা বেড়ে ৪ সেপ্টেম্বর দাঁড়িয়েছে ৬৯ টাকা ৬০ পয়সা।

বিনিয়োগকারীরা বলছেন, ইউনিক হোটেলের সামনে জুলাই থেকে ৩০ জুন সমাপ্ত বছরের লভ্যাংশ ঘোষণা হবে। বিনিয়োগকারীদের প্রত্যাশা বিগত দুই বছরের তুলনায় এ বছর আরও ভালো লভ্যাংশ দেবে। এ কারণে শেয়ারটিতে বিনিয়োগ করছেন তারা।

এদিকে হঠাৎ কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বৃদ্ধির পেছনে কোনো সংবেদনশীল তথ্য আছে কিনা খতিযে দেখবে ডিএসই। এ বিষয়ে ডিএসইর প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা ও মুখাপত্র বলেন, কোম্পনির শেয়ারের দাম বৃদ্ধির কোনো কারণ আছে কিনা দেখা হবে। তিনি বলেন, মূল মার্কেট ছাড়াও স্পট মার্কেটে শেয়ারটির অনেক লেনদেন হচ্ছে। কে বা কারা করছে সে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

কোম্পানিটি ২০২১ সালে শেয়াহোল্ডারদের ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। তার আগের বছরও ১০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল। প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা ঋণে থাকা কোম্পানিটির রিজার্ভ সারপ্লাস দেখানো হয়েছে ১ হাজার ৬৭৮ কোটি টাকা।

বর্তমানে কোম্পানির উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে রয়েছে কোম্পানির ৪৬ শতাংশ শেয়ার, ২৭ শতাংশ রয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে রয়েছে কোম্পানির ২৫ শতাংশ শেয়ার।