ঢাকা ১২:১৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মৃত ব্যক্তির জাল স্বাক্ষর করে জমি আত্মসাতের অভিযোগ

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে মৃত ব্যক্তির স্বাক্ষর জাল করে জমি আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার শহরের ৯নং ওয়ার্ড নওদাগ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগী ওই গ্রামের মৃত তৈইজউদ্দীনের ছেলে কুরবান আলী অভিযোগ করে বলেন, তার বড় ভাই নুর ইসলাম ২০১২ সালে মারা গেলেও ২০১৩ সালে আদালতে হাজিরা নামায় জাল স্বাক্ষর করায় একই গ্রামের আইনদ্দীন নামের এক ব্যাক্তি।

কুরবান ও তার পরিবার পৈত্রিক সুত্রে ১৭শতক জমির মালিক। প্রভাবশালী ও ভূমিদূস্য্য আইনদ্দীন ও তার ভাইদের নজর পড়ে তাদের জমির উপর। জাল দলিল করে জমি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠে। জমি পেতে ২০১৩ সালে আইনদ্দীন আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আদালত জমির প্রকৃত মালিক কোরবান আলীদের নামে নোটিশ জারি করলে সুচতুর আইনদ্দীন আদালতের নোটিশ নিজের কবব্জায় নেয়। আদালতের হাজিরার দিন আইনদ্দীন তার অনুগত লোকদের বিবাদী সাজিয়ে ১৩ সালের ১ জুলাই আদালতে হাজির করিয়ে কুরবানের সকল ভাই বোনদের জাল স্বাক্ষর করে ছলেনামা করার চেষ্টা করে।

কোটচাদপুর পৌরসভার মৃত্যু সনদ অনুযায়ী কোরবানের বড় ভাই নুরইসলাম ২০১২ সালের ১৫ জুন স্টোক জনিত কারনে মারা গেলেও আইনদ্দীন জালিয়াতি করে ১৩ সালে হাজিরা নামায় সাক্ষর করায়। কুরবান আলী বলেন, আমার ভাই ১২ সালে মারা গেলে ১৩ সালে কিভাবে আদালতে হাজিরা দিলো। আইনদ্দীন জালিয়াতি করে এই কাজ করেছে।

আমরা এর সুূষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া দাবী জানাচ্ছি। আমার থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছি। কোটচাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মঈন উদ্দিন আহম্মেদ দৈনিক আমাদের মাতৃভূমিকে বলেন, একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত চলছে। সত্যতা নিশ্চিত হলে আইনানুগ ব্যাবস্থা নিবো,।

Tag :

আপনার মতামত লিখুন

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল ও অন্যান্য তথ্য সঞ্চয় করে রাখুন

মৃত ব্যক্তির জাল স্বাক্ষর করে জমি আত্মসাতের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৭:০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে মৃত ব্যক্তির স্বাক্ষর জাল করে জমি আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার শহরের ৯নং ওয়ার্ড নওদাগ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। ভুক্তভোগী ওই গ্রামের মৃত তৈইজউদ্দীনের ছেলে কুরবান আলী অভিযোগ করে বলেন, তার বড় ভাই নুর ইসলাম ২০১২ সালে মারা গেলেও ২০১৩ সালে আদালতে হাজিরা নামায় জাল স্বাক্ষর করায় একই গ্রামের আইনদ্দীন নামের এক ব্যাক্তি।

কুরবান ও তার পরিবার পৈত্রিক সুত্রে ১৭শতক জমির মালিক। প্রভাবশালী ও ভূমিদূস্য্য আইনদ্দীন ও তার ভাইদের নজর পড়ে তাদের জমির উপর। জাল দলিল করে জমি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠে। জমি পেতে ২০১৩ সালে আইনদ্দীন আদালতে মিথ্যা মামলা দায়ের করে। আদালত জমির প্রকৃত মালিক কোরবান আলীদের নামে নোটিশ জারি করলে সুচতুর আইনদ্দীন আদালতের নোটিশ নিজের কবব্জায় নেয়। আদালতের হাজিরার দিন আইনদ্দীন তার অনুগত লোকদের বিবাদী সাজিয়ে ১৩ সালের ১ জুলাই আদালতে হাজির করিয়ে কুরবানের সকল ভাই বোনদের জাল স্বাক্ষর করে ছলেনামা করার চেষ্টা করে।

কোটচাদপুর পৌরসভার মৃত্যু সনদ অনুযায়ী কোরবানের বড় ভাই নুরইসলাম ২০১২ সালের ১৫ জুন স্টোক জনিত কারনে মারা গেলেও আইনদ্দীন জালিয়াতি করে ১৩ সালে হাজিরা নামায় সাক্ষর করায়। কুরবান আলী বলেন, আমার ভাই ১২ সালে মারা গেলে ১৩ সালে কিভাবে আদালতে হাজিরা দিলো। আইনদ্দীন জালিয়াতি করে এই কাজ করেছে।

আমরা এর সুূষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া দাবী জানাচ্ছি। আমার থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছি। কোটচাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মঈন উদ্দিন আহম্মেদ দৈনিক আমাদের মাতৃভূমিকে বলেন, একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত চলছে। সত্যতা নিশ্চিত হলে আইনানুগ ব্যাবস্থা নিবো,।